মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
পাতা

সিটিজেন চার্টার

*  নির্দ্দিষ্ট মৌসুমের জন্য অপ্রধান বনজদ্রব্য যেমন-গোলপাতা, হেতাল, ছন, বলা, মালিহা ঘাস, মধু, মাছ/শুটকী মাছ ইত্যাদির ক্ষেত্রে নির্ধারিত রাজস্ব চাঁদপাই ও শরণখোলা রেঞ্জের আওতাধীন ষ্টেশন সমূহে প্রদান সাপেক্ষে বনজীবি, মৎস্য জীবিদের পাশ/পারমিট/সার্টিফিকেট প্রদান করা হয়।

 

   

    * শীতকালীন মৌসুমে নিবন্ধিত/অনিবন্ধিত ট্যুরিষ্ট লঞ্চ-এর মাধ্যমে ট্যুররিষ্টদের সুন্দরবন ভ্রমনের জন্য নির্ধারিত রাজস্ব প্রদান সাপেক্ষে অনুমতি প্রদান করা হয়। এক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় নিরাপত্তারক্ষী দিয়ে ভ্রমনে সহযোগিতা করা হয়। সাধারণতঃ অক্টোবর মাস হতে ফেব্রুয়ারি মাস পর্যন্ত ট্যুরিষ্টদের জন্য সুন্দরবন ভ্রমনের উত্তম সময়।

 

    *  সারা বছর ট্যুরিষ্টদের করমজল বন্যপ্রাণী প্রজনন কেন্দ্রে নির্ধারিত ফি প্রদান সাপেক্ষে বন্যপ্রাণী স্বচক্ষে দর্শন, সুন্দরবনের জীববৈচিত্র সম্পর্কে ধারণা ও বনাভ্যন্তরে পাঁয়ে হেটে ভ্রমনে সহযোগিতা করা হয়।

 

    *  কাঁকড়া রপ্তানী কারকদের খামার নিবন্ধিকরণ করা হয় এবং কাঁকড়া রপ্তানীর ব্যাপারে খামারে কাঁকড়া মজুদ নির্ধারণ করতঃ অনাপত্তি পত্র প্রাপ্তির জন্য প্রতিবেদন উর্ধতন কর্তৃপক্ষের নিকট প্রেরণ করা হয়।

 

    *  সংরক্ষিত বনাঞ্চল ও তদসংলগ্ন বঙ্গোপসাগরে মাছ ধরার জন্য তালিকাভুক্ত ট্রলার মালিকদের জলযান নিবন্ধিকরণ সাপেক্ষে আবেদনের প্রেক্ষিতে অনুমতি প্রদান করা হয়। প্রতি মাসের জন্য অনুমতিপত্র নির্ধারিত রাজস্ব আদায়ের পর প্রদান করা হয় ( ৩ হর্স পাওয়ার ও তদুর্ধ ইঞ্জিন বিশিষ্ট ট্রলারের জন্য প্রযোজ্য )।

 

দে *  দেশীয়/গ্রামীন বনজদ্রব্য (যেমন-গাছের লগ, জ্বালানী, বাঁশ ইত্যাদি )-এর চলাচল পাশ (টি,পি) প্রদান করা হয়। আবেদনকারীর আবেদনে উল্লেখিত বনজদ্রব্যের জাত, পরিমান, বৈধতা ইত্যাদি যাচাই সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র দাখিলের পর পাশ বা  টি,পি প্রদান করা হয়।

 

* *  বাগেরহাট জেলার বাগেরহাট সদর, মংলা, মোড়েলগঞ্জ এবং শরণখোলা উপজেলার করাতকল সমূহের লাইসেন্স প্রদান করা হয়। বিভাগীয় বন কর্মকর্তা বরাবর নির্ধারিত ফরমে আবেদন ও প্রয়োজনীয় কাগজপত্র দাখিলের পর উপজেলা/জেলা পরিবেশ ও বন উন্নয়ন কমিটির সিদ্ধান্ত/সুপারিশ প্রদানের পর ১(এক) বছর মেয়াদী করাতকল চালনার লাইসেন্স ইস্যু করা হয়। তাছাড়া করাতকলের লাইসেন্স এর উপরোক্ত প্রক্রিয়া অনুসরণ করতঃ নবায়ন করাহয়।